দেশীয় ছোট মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন সম্পর্কে জানতে চাই

1 answer

প্রজনন
প্রজনন হল জনতা/জীবের বর্ধনের জন্মগত ক্ষমতা। প্রজনন দ্বারা জীব নতুন জীবের বা সন্তানের জন্ম দেয়। এ সব নতুন জীবের জন্ম প্রসব, ডিম ফুটে বা বিভাজন দ্বারা হতে পারে। এক কথায়, যে কোন পদ্ধতিতে পুরাতন/পরিপক্ক জীব থেকে নতুন জীবের জন্ম হওয়াটাই হল প্রজনন। মৎস্য প্রজননের ক্ষেত্রে সাধারনতঃ ডিমফুটে নতুন জীবের জন্ম হয়। মাছকে প্রাকৃতিক ও প্রণোদিত উপায়ে প্রজনন করা যায়।
 
প্রাকৃতিক প্রজননে মাছ প্রাকৃতিক পরিবেশে (যেমন নদ-নদীতে) স্বেচ্ছায় প্রনোদিত হয়ে প্রজনন করে থাকে। আর প্রণোদিত প্রজননে কৃত্রিমভাবে হ্যাচারীতে মাছকে হরমোন বা উত্তজক ব্যবহার করে প্রজনন করানো হয়।
 
ছোট মাছের প্রজনন
অভ্যন্তরীণ মুক্ত জলাশয় যেমন নদ-নদী, খাল-বিল, হাওর-বাঁওড়, প্লাবনভূমি ইত্যাদিই মূলত ছোট মাছের বিচরণ ক্ষেত্র। উক্ত বিচরণক্ষেত্রেই সাধারণত ছোট মাছ প্রাকৃতিক ভাবে প্রজনন করে থাকে। তবে ছোট মাছের প্রজনন সম্পাদন ও উৎপাদন বৃদ্ধিতে প্লাবনভূমি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাংলাদেশের অধিকাংশ এলাকাই প্লাবনভূমি বিদ্যমান। বর্ষা মৌসুমে সব জলাশয় অর্থাৎ নদী-খাল-প্লাবনভূমি মিলেমিশে একাকার হয়ে যায়। মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন ও জীবনচক্র সম্পাদনে এ ধরণের পরিবেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
 
প্রাকৃতিকভাবে ছোট মাছ সাধারণত খাল-বিল, প্লাবনভূমি, হাওর-বাঁওড়, পুকুর-দিঘী, ডোবা-নালা ও নিমজ্জিত ধান ক্ষেত ইত্যাদি স্থানে প্রজনন করে থাকে। যে সমস্ত স্থানে বর্ষার প্রথম বৃষ্টির পানি জমে, কিছু কিছু ছোট মাছ সে সকল স্থানে প্রজনন করে। এদের মধ্যে আবার অনেক ছোট মাছ রয়েছে মাইগ্রেটরী স্বভাবের। তারা প্রজনন করার জন্য মৌসুমে অন্যত্র মাইগ্রেট করে।
 
নদী ও প্লাবনভূমির ঋতুভিত্তিক পরিবর্তন ছোট মাছের খাদ্য ও প্রজনন এবং চলাচল বা মাইগ্রেশনে প্রভাব বিস্তার করে। বর্ষার শুরুতে (এপ্রিল-জুন) এবং ভরা বর্ষায় (জুলাই) নদীর সাথে খাল-বিলের সংযোগ স্থাপিত হয় এবং এ সময় অনেক ছোট মাছ মাইগ্রেশন করে প্রজনন করে থাকে। বর্তমানে জলজ আবাসস্থলের অবক্ষয়ের কারণে অধিকাংশ ছোট মাছের চলাচল পথ বিঘ্নিত হচ্ছে ফলে ছোট মাছের আবাসস্থল সংকুচিত হয়ে আসছে। ফলশ্রুতিতে খাদ্য ও প্রজনন বাধাগ্রস্থ হয়ে মুক্ত জলাশয়ে ছোট মাছের উৎপাদন ও জীববৈচিত্র্যতা ব্যাপকভাবে হ্রাস পাচ্ছে।
 
ছোট মাছের জীবন চক্রের স্থায়িত্বকাল খুবই কম। এদের অধিকাংশই বর্ষা ঋতুতে একাধিকবার প্রজনন করে থাকে। গ্রীষ্মকালে অধিক বৃষ্টির পর পরই ছোট মাছ স্রোতের বিপরীতে মাইগ্রেশন করে – যা তাদেরকে প্রজননে সহায়তা করে। এরপর মাছগুলি বিভিন্ন জলাশয়ে ছড়িয়ে পড়ে এবং ছোট ছোট পোনা প্রাকৃতিক লালনক্ষেত্রে খাদ্য গ্রহণ করে বড় হতে থাকে।
 
তথ্যসূত্র: DoF, Bangladesh

#1

Please login or Register to Submit Answer

Latest Q&A

Like our FaceBook Page to get updates



Are you satisfied to visit this site? If YES, Please SHARE with your friends

To get new Q&A alert in your inbox, please subscribe your email here

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner