পোনা পরিবহণের সনাতন পদ্ধতিগুলো কী কী?

1 answer

Anonymous December 25, 2014

পোনা পরিবহণের উন্মুক্ত পদ্ধতিই সনাতন পদ্ধতি নামে পরিচিত।
এ পদ্ধতিটি সনাতন হলেও বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই পোনা পরিহণের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়। তবে রেণু (Spawn) পরিবহণের ক্ষেত্রে এ পদ্ধতির ব্যবহার খুবই কম। এ পদ্ধতিতে এ্যালুমিনিয়ামের পাতিল বা ড্রামের মাধ্যমে পোনা পরিবহন করতে হয়। পোনা পরিবহণের পূর্বে অবশ্যই পোনা টেকসই করে নিতে হবে। টেকসই করণের পর পোনা পরিবহন উপযোগি হলে পরিমাণ মত নলকুপ/নদী/পুকুরের পরিস্কার ঠান্ডা পানি নিতে হবে। এ পদ্ধতিতে সাধারণতঃ ২০-৩০টি পোনা/লিটার ঘনত্বে পরিবহন করা যায়। মাঠ পর্যায়ে এ পদ্ধতিতে পোনা পরিবহনের হার নিম্নরূপ (৬-৮ ঘন্টার ভ্রমণে):
পাতিলের মাধ্যমে

  • কৈ মাছ – ১০০০-১৫০০টি (৮-১২ লি. পানি)
  • শিং ও মাগুর – ১০০০-২০০০টি (৮-১২ লি. পানি)

ড্রামের মাধ্যমে

  • কৈ – গড় ওজন ০.২- ০.৩ গ্রাম হলে ৭-৮ হাজার প্রতি ড্রামে
    গড় ওজন ০.৪-০.৫ গ্রাম হলে ৫-৬ হাজার প্রতি ড্রামে;
  • শিং এবং মাগুর – ৪০০০- ৬০০০টি প্রতি ড্রামে।

উল্লেখযোগ্য যে শিং এবং মাগুর মাছের পোনা ড্রামে/পাতিলে পরিবহন না করাই ভাল। কারণ দু‘টো মাছই তলদেশী। ফলে বুকে ঘসা লেগে ক্ষত সৃষ্টি হয় এবং পরে পোনা ইনফেকশন হওয়ার কারণে মারা যায়। এ পদ্ধতিতে পোনা পরিবহন কালে পাতিল/ ড্রামে মুখ ভেজা পাতলা কাপড় বা মশারীর জাল দিয়ে ঢেকে রাখতে হয়। এক্ষেত্রে পাতিল/ড্রামের পানিতে হাত দিয়ে বা ঝাকিয়ে বাতাসের অক্সিজেন মিশাতে হয় এবং ৪/৫ঘন্টা পর পর পানি বদলাতেহয়। পোনা পরিবহনকালে লক্ষ্য রাখতে হবে যেন ড্রাম/পাতিলের পানি অত্যাধিক গরম না হয়।
 
তথ্যসূত্র: DoF

#1

Please login or Register to Submit Answer

Latest Q&A

Like our FaceBook Page to get updates



Are you satisfied to visit this site? If YES, Please SHARE with your friends

To get new Q&A alert in your inbox, please subscribe your email here

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner