মানব দেহে ফরমালিনের ক্ষতিকর প্রভাবগুলো কি কি?

1 answer

মানব দেহে ফরমালিনের ক্ষতিকর প্রভাবঃ

ফরমালিন ইকোসিস্টেম এবং জনস্বাস্থ্যের জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকর(worst 10%) যৌগের মধ্যে একটি। মৃত দেহ সংরক্ষণ ও এনাটমির বিষয়ে (০.৫-১.০ ppm ফরম্যালডিহাইড নিয়ে সপ্তাহে ১ দিন ৩ ঘন্টা কাজ করে) ১০ সপ্তাহ কাজ করার পর তাদের মধ্যে যে সমস্ত উপসর্গ দেখা গিয়েছে তা হলো- নাকের প্রদাহ, শ্বাস কষ্ট এবং চর্ম প্রদাহ (skin iritation) ইত্যাদি। দীর্ঘমেয়াদে ফরমালডিহাইডের সংস্পর্শে কাজ করলে রক্তের লিম্পোসাইট পরিবর্তন, নাসিকা টিস্যুতে মিউটেটিভ প্রভাব ইত্যাদি ঘটতে পারে। তবে স্বল্প সময় exposure এর কারণে এগুলো কাটিয়ে ওঠা যায় (recoverable)। কিন্তু long term/low dose এর ক্ষেত্রে স্থায়ী সমস্যা দেখা দেয়, এক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক সমস্যা দেখা দেয় না।

Carcinogenicity: পৃথিবীর সমস্ত রাসায়নিক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণকারী এজেন্সি ফরমালিনকে কারসিনোজেনিক হিসাবে শ্রেনীভূক্ত করেছে। ১৯৮৭ সালে US Environmental Protection Agency (EPA) ফরম্যালডিহাইড এর উচ্চ মাত্রায় অথবা দীর্ঘস্থায়ী exposure-কে probable human carcinogen হিসাবে শ্রেণীবিন্যাস করেছে। শিল্প শ্রমিকদের উপর পরিচালিত কিছু গবেষণায় দেখা যায় যে, ফরম্যালডিহাইডের সংস্পর্শে যারা কাজ করেন তাদের নাকের ক্যান্সার, ন্যাসোফেরিঞ্জিয়াল ক্যান্সার এবং লিউকেমিয়া হওয়ার প্রবণতা বেশি। ১৯৯৫ সালে International Agency for Research on Cancer (IARC) জানিয়েছে যে ফরম্যালডিহাইড একটি ‘Probable human carcinogen’। National Cancer Institute, USA এর একাধিক গবেষণায় প্রতীয়মাণ হয় যে এনাটমিস্ট এবং অ্যাম্বালমার (যারা মৃতদেহ সংরক্ষণের কাজ করে) পেশার যারা ফরমালিন নিয়ে কাজ করেন তারা সাধারণ জনগোষ্ঠীর তুলনায় লিউকেমিয়া এবং ব্রেন ক্যান্সারের উচ্চ ঝুঁকি মধ্যে রয়েছেন। ফরমালিন ফুসফুস ক্যান্সারের জন্যও দায়ী। তাছাড়া কিডনি রোগ দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ফরমালিন চর্ম এলার্জি, শ্বসন সংবেদক এবং অ্যাজমা জাতীয় লক্ষণের জন্য দায়ী। বিভিন্ন গবেষণায় ফরম্যালডিহাইডকে জিন মিউটেশন (বংশ চরিত্র বাহকের পরিবর্তন) এর কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

গর্ভাবস্থা (pregnancy) এবং ফরমালিন: গর্ভবতী মহিলাদের ফরমালিন নিয়ে কাজ করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। নিতান্তই যদি পেশা জণিত কারণে কাজ করতে হয় তবে formaldehyde respirator ব্যবহার করে কাজ করার পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

ক্ষতিকর প্রভাব: মহিলাদের ক্ষেত্রে ভ্রুণের অস্বাভাবিকতা, গর্ভপাত, গর্ভস্রাভ, প্রজনন ক্ষমতা হ্রাস এবং প্রসব জণিত অন্যান্য জটিলতা দেখা দেয়।

মাছে বা ফলে বা অন্য কোন খাদ্যদ্রব্যে ফরমালিনের অপব্যবহার একটি অতিসম্প্রতি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা বিধায় এ বিষয়ে বিস্তারিত গবেষণালব্ধ তথ্য পাওয়া যায়নি। তাছাড়া ভোক্তাশ্রেণীর মধ্যে কে বা কারা প্রতিনিয়ত ফরমালিনযুক্ত খাবার খাচ্ছে এ বিষয়টি নিশ্চিত করা খুবই দূরহ ব্যাপার। তবে, উপরের আলোচনা হতে প্রতিয়মাণ হয় যে স্বল্প মেয়াদে উচ্চ মাত্রায় অথবা দীর্ঘ মেয়াদে নিমণ মাত্রায়ও ফরমালিন মিশ্রিত খাদ্য গ্রহণের কারণে মানুষ উল্লিখিত স্বাস্থ্য ঝুকিসমূহের সম্মুখিন হতে পারে। অধিকন্তু উল্লিখিত স্বাস্থ্য ঝুঁকিসমূহের পাশাপাশি ফরমালিন মিশ্রিত খাদ্য গ্রহণের কারণে মানুষ ডাইজেস্টিভ সিস্টেম এর নানাবিধ জটিলতা বা গেস্ট্রো-ইন্টেস্টাইনাল ক্যান্সারসহ অন্যান্য জটিলতায় ভুগতে পারে।
 
তথ্যসূত্র: DoF

#1

Please login or Register to Submit Answer

Latest Q&A

To get new Q&A alert in your inbox, please subscribe your email here

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

Like our FaceBook Page to get updates

Are you satisfied with this site?

If YES, Please SHARE with your friends

If NO, You may send your feedback from Here

OR, Do you have any fisheries relevant question? Please Ask Here